পরীক্ষার ১৩ সপ্তাহ আগে খাওয়ান মাত্র দুটি খাবার (দেখুন জাদকরি ক্যালমা, গবেষণায় প্রমাণিত)

সন্তানের ভালো রেজাল্ট আশা করেন প্রত্যেক বাবা-মা। কিন্তু ভালো রেজাল্ট এর জন্য অবশ্যই পরীক্ষার সময় দুশ্চিন্তামুক্ত থাকাটা জরুরী। আর ইতোমধ্যে গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে যে– পরীক্ষার ১৩ সপ্তাহ আগে সন্তানকে যদি নিয়মিত মাত্র দুইটি খাবার খাওয়ানো যায় তাহলে ফাটাফাটি রেজাল্ট করা সম্ভব। 

কি অবাক হচ্ছেন? কিন্তু অবাক হলেও এটাই সত্যি। কেননা গবেষণার পরবর্তী সময়ে যে দুইটি খাবার খাওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে, ওই দুইটি খাবারই মূলত– মানসিক চাপ কমাতে দুর্দান্ত কাজে আসে। আর এটা আমরা সবাই কমবেশি জানি– পরীক্ষার খাতায় অনেক সময় জানা জিনিসও ভুল হয়ে যায় আর এর কারণ পরীক্ষা নিয়ে দুশ্চিন্তা, হতাশা ও হীনমন্যতায় ভোগা। 

পরীক্ষার ১৩ সপ্তাহ আগে খাওয়ান মাত্র দুটি খাবার

তো আপনি যদি আপনার সন্তানের থেকে ভালো ফলাফল আশা করেন, তাহলে খাবার তালিকায় নিয়মিত রাখুন এই দুইটি খাবার। যা দীর্ঘ সময় গবেষণার পরবর্তীতে আদর্শ সুপারফুড হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে এবং দেখিয়েছে জাদুকরি ক্যালমা।

আরও পড়ুনঃ শরীর শুকিয়ে যাওয়ার কারণলিভার রোগীর খাদ্য তালিকায় কি কি খাবার রাখা যাবে

পরীক্ষায় ভালো ফলাফলের জন্য আদর্শ পুষ্টিকর খাবার

পরীক্ষায় ভালো ফলাফলের জন্য আদর্শ দুটি খাবার হচ্ছে–

  • বাদাম এবং
  • আখরোট
পরীক্ষার ১৩ সপ্তাহ আগে খাওয়ান মাত্র দুটি খাবার
পরীক্ষার ১৩ সপ্তাহ আগে খাওয়ান মাত্র দুটি খাবার
পরীক্ষার ১৩ সপ্তাহ আগে খাওয়ান মাত্র দুটি খাবার
পরীক্ষার ১৩ সপ্তাহ আগে খাওয়ান মাত্র দুটি খাবার

আরও দেখুনঃ শরীর দুর্বল হলে কি কি সমস্যা হয় (লক্ষণ, কারণ ও প্রতিকার)

তবে হ্যাঁ, শুধুমাত্র বাদাম এবং আখরোট কেজি কেজি খাওয়ালে যে পরীক্ষার রেজাল্ট ভালো হবে এমনটা নয়। অবশ্যই খাদ্য তালিকায় পুষ্টি সমৃদ্ধ অন্যান্য খাবারও রাখতে হবে। তবে গবেষণায় এটা প্রমাণিত হয়েছে, যারা নিয়মিত বাদাম এবং আখরোট খায় তাদের ব্রেন অনেক তীক্ষ্ণ হয়, মানসিক চাপ কমে যায় এবং মস্তিষ্ক স্বাভাবিকভাবে পরিচালিত হয়, সেই সাথে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায় এবং শরীরের সামগ্রিক সুস্থতার উন্নতি ঘটে।

আর তাই যে সকল বাবা-মা সন্তানের একাডেমিক সাফল্য আশা করেন, তারা অবশ্যই শিক্ষার্থীদের অর্থাৎ আপনার বাচ্চার সঠিক পুষ্টিকর খাবারের গুরুত্ব উপেক্ষা না করে এ ব্যাপারে নজর দিন এবং সতর্ক হোন। কেননা– নিউট্রিয়েন্টস জার্নালে প্রকাশিত সাউথ অস্ট্রেলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি সমীক্ষা অনুসারে, আখরোট হলো একটি জাদু বাদাম, যা অ্যাকাডেমিক চাপের নেতিবাচক প্রভাবগুলোকে প্রশমিত করতে সক্ষম। বিশেষ করে মহিলাদের উপর এটা সত্যিই ম্যাজিকের মতো কাজ করে বলে জানিয়েছে গবেষকরা। 

এছাড়াও গবেষকদের মতে– যারা পরীক্ষার সময় অতিরিক্ত পড়ার চাপে থাকে এবং মানসিক স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটে তাদের স্বাস্থ্যের জন্য আখরোট এবং বাদাম অত্যন্ত উপকারী। জানলে অনেকটাই অবাক হবেন– ইতোমধ্যে ৪০ জন স্নাতক ছাত্রদেরকে নির্বাচন করে তিনটি দলে বিভক্ত করার পরবর্তীতে তাদেরকে আখরোট দেওয়া হয়। 

পরীক্ষা শুরুর আগে মোটামুটি ১৩ সপ্তাহ হাতে থাকতে তাদেরকে নিয়মিত আখরোট খাওয়ানো হয়। অন্যদিকে শুধুমাত্র একদলকে পরীক্ষার দুই সপ্তাহ আগে থেকে আখরোট খাওয়ানো হয় এবং আরেকটি দলকে শুধু পরীক্ষার সময় আখরট খাওয়ানো হয়। পরবর্তীতে জানা গিয়েছে–যে সকল শিক্ষার্থীদের কে পরীক্ষা শুরুর ১৩ সপ্তাহ আগে থেকে আখরোট খাওয়ানো হয়েছিল তাদের মানসিক স্বাস্থ্য আগের থেকে অনেক বেশি উন্নত হয়েছে। শুধু তাই নয়- মেটাবলিজম বায়মার্কার এবং সামগ্রিক ঘুমের গুণগত মান আগের তুলনায় অনেক ভালো হয়েছে।

আর এর বাইরেও আখরোট এবং বাদামের রয়েছে বেশ কিছু জাদুকরী উপকারিতা। ঠিক এই কারণেই গবেষণা অনুযায়ী পরীক্ষার ১৩ সপ্তাহ বা তার বেশি সময় পূর্বে থেকে যদি সন্তানদেরকে নিয়মিত বাদাম এবং আখরোট খাওয়ানো হয় তাহলে রেজাল্ট আশানুরূপ ভালো হবে। কারণ মানসিক চাপ কম থাকলে, মস্তিষ্ক সুন্দরভাবে ভাবতে পারলে এবং পরীক্ষা নিয়ে দুশ্চিন্তা কম থাকলে খুব সহজেই নিজের জানা বিষয়গুলো পরীক্ষার খাতায় ভালোভাবে উপস্থাপন করা যায়।

তো সুপ্রিয় পাঠক বন্ধুরা, আপনি যদি আপনার সন্তানের থেকে ভালো রেজাল্ট আশা করেন তাহলে আর দেরি নয়। এখনই সন্তানকে পুষ্টি সমৃদ্ধ খাবার খাওয়ান এবং অবশ্যই খাবারের তালিকায় বাদাম এবং আখরোট রাখার চেষ্টা করুন। সেই সাথে অবশ্যই ঠিকমতো পরিকল্পনামাফিক প্রস্তুতি নিয়ে বাচ্চাদের পড়াতে ভুলবেন না। 

সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন। খুব শীঘ্রই আবারো নতুন টপিকের নতুন কোন আলোচনায় আপনাদের সাথে কথা হবে। আর যদি আর্টিকেলটি ভালো লাগে শেয়ার করবেন এবং alleasyadvice এর সাথে থাকবেন। সবাইকে আল্লাহ হাফেজ। 

আরও দেখুনঃ

All Easy Google News
Setu
Setu

Assalamu Alaikum, I am Setu. An ordinary girl studying in honors. Currently engaged in the world of technology. I am very passionate about blogging and writing. I like to learn and share something new😇

Articles: 135

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *